মুখোশ pdf – নীহাররঞ্জন গুপ্ত Mukhosh pdf – Niharronjon Gupta

মুখোশ pdf - নীহাররঞ্জন গুপ্ত Mukhosh pdf - Niharronjon Gupta

নীহাররঞ্জন গুপ্ত এর পশ্চিমবঙ্গের বই রহস্য, গোয়েন্দা, ভৌতিক, থ্রিলার ও অ্যাডভেঞ্চার pdf Mukhosh pdf মুখোশ pdf ডাউনলোড করুন।

মুখোশ pdf - নীহাররঞ্জন গুপ্ত Mukhosh pdf - Niharronjon Gupta

Mukhosh pdf কাহিনীঃ

মুখোশ পুরোপুরি নাটক নয়, আবার উপন্যাসও নয়। বলা যেতে পারে দুয়ের মাঝামাঝি, নতুন টেকনিকে। একটি রহস্য কাহিনী। মাত্র তিনটি দিন ও রাত্রির ঘটনাকে কেন্দ্র করে কাহিনী দানা বেঁধে উঠে। আকাশবাণী কলকাতায় ‘মুখোশ’ হিনীর নাট্যরূপ ধারাবাহিক একসময় অভিনীত হয়েছে। সেইরুপের সঙ্গে মূল কাহিনীর পার্থক্য আছে ঘটনাসংস্থান ও চরিত্রে দিয়ে। সর্বশেষে নিবেদন, লেখকের বিবৃতিতে এই কাহিনীর কোন নাট্যরূপ দেওয়া বা কোন রকম অভিঞ্চ দেওয়া চলবে না।

নীহাররঞ্জন গুপ্ত এর সকল পিডিএফ ডাউনলোড করুন এখানে।

Mukhosh pdf নমুনাঃ

বেহার প্রদেশের ছোটখাট একটি স্টেশন।
শহরটা স্টেশন থেকে পূবে বেশ খানিকটা দূরে এবং ইতস্তত ছড়ান। আর দক্ষিণ দিকে শহর গড়ে ওঠে নি। জঙ্গল আর ছোট ছোট পাহাড়। জঙ্গল যেখান থেকে শুরু হয়েছে তারই মাইল খানেক আগে একটা পুরাতন কুঠি বাড়িতে বর্তমান কাহিনীর যবনিকা উত্তোলিত হচ্ছে।
কুঠি বাড়িটার আশপাশে অন্তত মাইল খানেকের মধ্যে আর বসতি নেই। শুধু আছে একটা নাতি-প্রশস্ত পথ। তবে জঙ্গল সীমানার বরাবর কিছু দেহাতী গোয়ালা শ্রেণীর লোকের বাস আছে। Mukhosh pdf

কুঠি বাড়িটা শোনা যায় এককালে নাকি কুখ্যাত নীলকুঠি ছিল। ফ্যালকন সাহেবের নীলকুঠি। পরে ঐ সাহেবের মৃত্যুর পর এক ধনী বেহারী ভদ্রলোক ঐ কুঠি বাড়িটা তার আত্মীয়দের কাছ থেকে নামমাত্র মূল্যে ক্রয় করে নিয়েছিলেন। ক্রয়ই করেছিলেন— বসবাস কেউ করে নি ওখানে। পড়ো বাড়ির মতই কুঠি বাড়িটা বহু বছর ধরে পড়ে ছিল। তার পর বছর আষ্টেক আগে হঠাৎ যুদ্ধ থেমে যাবার পর যুদ্ধ-ফেরতা মেজর রাজেশ্বর চৌধুরী কুঠি বাড়িটা ক্রয় করেন এবং সমস্ত বাড়িটা সংস্কার করে সেখানে এসে বাস করতে শুরু করেন।

প্রায় দেড় বিঘা জায়গা নিয়ে কুঠি বাড়িটা।
চতুঃসীমানায় দেড়মানুষ সমান উঁচু প্রাচীর। তারপর নানাবিধ ফল-ফুলের বাগান এবং একেবারে রেললাইন ঘেঁষে কুঠি বাড়িটা। দোতলা বাড়ি। উপরে ও নীচে বারো ঘর। দোতলায় খানিকটা খোলা ছাদ আছে। নীচের তলায় প্রকাণ্ড একটি আঙ্গিনা।
বাড়ির মালিক রাজেশ্বর চৌধুরীর যে কেবল বয়সই হয়েছে তাই নয়—গত এক বৎসর ধরে হৃদরোগে ভুগছেন। ডাক্তারের নির্দেশে তাঁকে একেবারে শয্যাশায়ীই হয়ে থাকতে হয়।

বাড়িতে লোকজনের মধ্যে রাজেশ্বর চৌধুরী নিজে, তাঁকে সর্বদা দেখাশোনা করবার জন্য মধ্যবয়সী নার্স বিনতা, ভৃত্য রতন, দারোয়ান মধু সিং ও বাবুর্চি বাইরাম খাঁন। কিন্তু যেদিনের কাহিনী বলছি সেদিন কুঠি বাড়িতে অনেকেই উপস্থিত ছিল। রাজেশ্বরের ভ্রাতুষ্পুত্রেরা—সমীর, অলকেশ, বিকাশ, সঞ্জীব, তাঁর ভাগ্নী — স্বপ্না, স্বপ্নার বাবা কৃতান্ত রায় এবং রাজেশ্বরের সলিসিটার মিঃ সান্যাল। Mukhosh pdf

রাজেশ্বরেরই ইচ্ছাক্রমে নিকট ও দূর সকল আত্মীয় যে যেখানে ছিল সকলকে চিঠি দিয়ে ডেকে এনেছিলেন মিঃ সান্যাল। রাজেশ্বর চৌধুরী তাঁর নগদ টাকা-কড়ি ও অন্যান্য সম্পত্তি উইল করে তাঁর সমস্ত আত্মীয়দের মধ্যে ভাগ করে দিয়েছেন, সেই উইলটাই পড়ে শোনাবার জন্যই সকলকে ডেকে এনেছিলেন।
উইল সর্বসমক্ষে আগামী কাল সকালে পড়া হবে। কিন্তু সে রাত আর পোহাল না।
তার আগেই ভয়াবহ একটা আকস্মিক দুর্ঘটনা ঘটে গেল কুঠি বাড়িতে।

শীতের রাত। সময়টা মাঘের মাঝামাঝি। রাত প্রায় সোয়া দশটা হবে, দোতলার ছাদে সমীর আর স্বপ্না আলিসার ধারে দাঁড়িয়ে কথা বলছিল।
সমীরের বয়স হবে বছর ত্রিশেক, সুশ্রী সুঠাম চেহারার যুবক। আর স্বপ্নার বয়স বছর চব্বিশ হবে, তন্বী শ্যামবর্ণ, চমৎকার চোখ-মুখের গঠন।
রাত কত হল সমীর? হঠাৎ স্বপ্না এক সময় শুধায়।
হাত ঘড়ির রেডিয়াম ডায়েলের দিকে তাকিয়ে সমীর বলে, সোয়া দশটা। দশটা বেজে গিয়েছে?
হ্যাঁ।

কিন্তু কই গ্র্যান্ড ফাদার ক্লকের ঘণ্টাধ্বনি তো শুনতে পেলাম না ।
বোধহয় অন্যমনস্ক ছিলাম আমরা তাই শুনতে পাই নি।
কিন্তু রাত নটা বাজবার শব্দ তো শুনতে পেয়েছিলাম। তবে। কি তবে? সমীর শুধায়।
কিছু না, কিন্তু কেমন যেন ভয় করছে—স্বপ্না বলে।
ভয়!
হ্যাঁ, মনে হচ্ছে যেন একটা—একটা কিছু ঘটবে ?
কিছু ঘটবে না। চল তো, ঘরে চল=
না না—ঘরে নয়। আমার, আমার কি মনে হচ্ছে জান সমীর।
কি? Mukhosh pdf

অনায়াসেই আমরা চলে যেতে পারতাম সমীর। কেন যে তুমি থেকে গেলে ? কি করি বল! জ্যাঠামণি বললেন।
তা নয়—তুমি—হ্যাঁ—তোমার মনেও সম্পত্তির লোভ রয়েছে-
কি বলছ স্বপ্না!
হ্যাঁ, হ্যাঁ—ঠিকই বলছি। তোমাদের প্রত্যেকের মনে। তোমার মনে, বিকাশদার মনে, হ্যাঁ, হ্যাঁ — ঠিকই বলছি। তোমাদের প্রত্যেকের মনে। তোমার মনে, . বিকাশদার মনে, অলকেশের মনে, সঞ্জীবদার মনে, আমার বাবা—ঐ কৃতান্ত রায়ের মনে—ঐ বিনতা দেবীর মনে, স্বপ্না বলতে থাকে, আমার—আমার মনেও। হ্যাঁ, প্রত্যেকের—প্রত্যেকের মনেই ছিল। আর সেই, সেই লোভেই প্রত্যেকে আমরা আগামী কালের প্রত্যুষের আশায়, আজ এখানে রাত্রে থেকে গিয়েছি।

Mukhosh pdf download link
Download

Be the first to comment

Leave a Reply